বগুড়ায় মাটির নিচে পুঁতে রাখা কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার আটক-২

0
199
বগুড়ায় মাটির নিচে পুঁতে রাখা কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার আটক-২

শাহজাহান আলী: বগুড়া জেলা: বগুড়ার কাহালু উপজেলার মুরইল ইউনিয়নের ডোমার গ্রামের একটি পুকুর পাড়ে মাটির নিচে পুঁতে রাখা গাইবান্দা সরকারি কৃষি কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্র এবং ওই গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে আরমান হাছান আন্না (১৯) এর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ৭সেপ্টেম্বর ( সোমবার) সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়ে দিয়েছেন। হত্যার কারণ নিশ্চিত না হলেও পরিবারের লোকজনদের সন্দেহ পারিবারিক বিরোধের জের ধরে তাকে শারীরিক আঘাতে হত্যার পর শ্বসরোধে মৃত্যু নিশ্চিত করে লাশ গুমকরার উদ্দেশ্যে মাটির নিচে পুঁতে রাখা হয়েছে। পুলিশ সঙ্গে জড়িত সন্দেহ ২( দুই) যুবককে আটক করেছে। কাহালু থানা পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানায়, ৬ সেপ্টেম্বার রোববার রাত ৮টার দিকে আন্না বাড়ি থেকে বের হয়ে আর বাড়িতে না ফিরলে পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্হানে খোঁজা খুজির এক পর্যায় ডোমার গ্রামের খাঁপাড়ায় ইটের দেয়ালে ঘেরা একটি পুকুর পাড়ে মাটি খনন করা দেখে সন্দেহ হয় তাদের। নিকটে গিয়ে দেখতে নিহত আন্নার একটি হাত মাটির উপরে এবং পুরো শরীর মাটির নিচে পুঁতে রাখা। পরে থানা পুলিশকে খরর দিলে সেখান হতে আন্নার লাশ ঊদ্ধার করে পুৃলিশ। তবে কি কারণে এই হত্যাকান্ড ঘটেছে সে ব্যাপারে এখনো কোন তথ্য পায়নি পুলিশ। এব্যাপারে কাহালু থাবার এসআই হাফিজুর রহমান,হত্যাকান্ডে সন্দেহ পাশের মুরগীর ফার্মের মালিক ওবায়দুর(৩০)ও তার কর্মচারী সুজন(২২) কে আটক করা হয়েছে। কাহালু থানা অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক ভাবে হত্যাাকান্ডের কারণ সন্পর্কে কিছু নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে পরিবারের লোকজন ও স্হানীয়দের বরাতে ধারনা করা হচ্ছে এলাকায় কোনো বিরোধের জেরে আরমান হাছান আন্নাকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে। এই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। দুই যুবককে আটক করা হয়েছে।