কোভিড-১৯: রোবট কর্মীদের চাহিদা জোরালো হবে?

0
78

 রোবটের উত্থানকে মানুষের জীবনযাত্রার জন্য আরেকটি হুমকি বলে মনে করা হলেও মহামারী করোনাভাইরাস বিশ্বকে আঁকড়ে ধরায় এখন কেউ রোবটের ব্যবহার বাড়ানোর কথা বললে সম্ভবত তাকে ক্ষমা করা হবে।

গবেষকরা বলছেন, ভালো হোক বা মন্দ হোক, বহু রোবট মানব শ্রমিকের স্থলাভিসিক্ত হচ্ছে এবং বেকারত্ব বাড়াচ্ছে এবং করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব এই প্রক্রিয়াটিকে আরো জোরদার করে তুলছে।

মার্কিন গবেষক মার্টিন ফোর্ড বলেছেন, “লোকেরা সাধারণত বলে যে তারা তাদের মিথস্ক্রিয়ায় একটি মানব উপাদান চায় তবে কোভিড -১৯ এটি বদলেছে।” 

মার্কিন এই ফিউচারিস্ট আগামী দশকগুলোতে অর্থনীতিতে রোবটের অন্তর্ভুক্তি কিভাবে হতে পারে সে সম্পর্কে লিখেছেন।

তাঁর মতে, ‘‘[কোভিড-১৯] গ্রাহকদের পছন্দ পরিবর্তন করতে এবং বাস্তবিকভাবে স্বয়ংক্রিয়তার নতুন সুযোগ উন্মুক্ত করতে চলেছে।”

সামাজিক দূরত্ব বাড়াতে এবং শারীরিক শ্রম দিতে হয়ে এমন স্টাফদের সংখ্যা হ্রাস করতে ছোট-বড় অনেক কোম্পানি রোবটের ব্যবহার বাড়াচ্ছে।তাছাড়া বাড়িতে রোবটদের এমন কাজেও ব্যবহার করা হচ্ছে যা শ্রমিকরা করতে পারে না।

আমেরিকার সবচেয়ে বড় খুচরা বিক্রেতা কোম্পানি ফ্লোর মুছার জন্য রোবটের ব্যবহার করছে।

করোনা মোকাবেলায় দক্ষিণ কোরিয়া জ্বর মাপতে ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণের কাজে রোবটের ব্যবহার করছে।

২০২১ সালেও সামাজিক দূরত্বের ব্যবস্থা বজায় রাখা প্রয়োজন হতে পারে –  স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের এমন সতর্কতার প্রেক্ষাপটে রোবট কর্মীদের চাহিদা বৃদ্ধি পেতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে।

সূত্র: বিবিসি